টাঙ্গাইল ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ খবর :
ব্রেকিং নিউজ :

সখীপুরে উত্যক্তের প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রাণ হারালো কলেজ শিক্ষার্থী

মো: নাহিদ খান
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৬৮ বার পড়া হয়েছে

টাঙ্গাইলের সখীপুরে খেলার মাঠে মেয়েদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে মো. মাজহারুল ইসলাম (২১) নামের অনার্স পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত প্রায় সোয়া একটার সময় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায় উপজেলার কালিয়ান এলাকায় গত শুক্রবার বিকেলে উত্যক্তকারীদের হাতে দুই দফায় মার খেয়ে আহত হয়ে চারদিন পর তার মৃত্যু হয়। সে কালিয়ান দক্ষিণ পাড়া এলাকার আবদুল মালেক মিয়ার ছেলে এবং সরকারি সা’দত কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় সাত জনের নাম উল্লেখ করে সখীপুর থানায় মামলা দিয়েছে নিহতের বাবা আবদুল মালেক মিয়া।

এলাকাবাসী জানায়, কালিয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে একটি মাঠে গত শুক্রবার বিকেলে ওই এলাকার বিবাহিত বনাম অবিবাহিতদের মধ্যে একটি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। কয়েকজন বখাটে খেলা দেখতে আসা এলাকার মেয়েদের নানাভাবে উত্যক্ত করে। এ সময় মাজহারুল তাদের উত্যক্ত করতে নিষেধ করলে ঘটনা স্থলেই দোহানীপাড়ার বখাটে ইয়ারুল ও তার সহযোগীরা তাকে কিল, ঘুষি মারে।

এ ঘটনার সূত্রধরে খেলা শেষে বাড়ি ফেরার পথে ইয়ারুল ইসলাম (১৮), ছাব্বির আহমেদ (১৭) সহ সাত-আট জন মিলে দেশীয় অস্ত্র লোহার রড ও দা দিয়ে মাজহারুলকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় চিৎকার শুনে তার বাবা ও অন্যান্যরা মাজহারুলকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তাররা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার নিউরো সাইন্স হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় সোমবার রাত প্রায় একটা দিকে মাজহারুল মৃত্যু হয়। বহেড়াতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওয়াদুদ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। বখাটেদের উপযুক্ত শাস্তি হওয়া উচিত। সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

সখীপুরে উত্যক্তের প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রাণ হারালো কলেজ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

টাঙ্গাইলের সখীপুরে খেলার মাঠে মেয়েদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে মো. মাজহারুল ইসলাম (২১) নামের অনার্স পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত প্রায় সোয়া একটার সময় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায় উপজেলার কালিয়ান এলাকায় গত শুক্রবার বিকেলে উত্যক্তকারীদের হাতে দুই দফায় মার খেয়ে আহত হয়ে চারদিন পর তার মৃত্যু হয়। সে কালিয়ান দক্ষিণ পাড়া এলাকার আবদুল মালেক মিয়ার ছেলে এবং সরকারি সা’দত কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় সাত জনের নাম উল্লেখ করে সখীপুর থানায় মামলা দিয়েছে নিহতের বাবা আবদুল মালেক মিয়া।

এলাকাবাসী জানায়, কালিয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে একটি মাঠে গত শুক্রবার বিকেলে ওই এলাকার বিবাহিত বনাম অবিবাহিতদের মধ্যে একটি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। কয়েকজন বখাটে খেলা দেখতে আসা এলাকার মেয়েদের নানাভাবে উত্যক্ত করে। এ সময় মাজহারুল তাদের উত্যক্ত করতে নিষেধ করলে ঘটনা স্থলেই দোহানীপাড়ার বখাটে ইয়ারুল ও তার সহযোগীরা তাকে কিল, ঘুষি মারে।

এ ঘটনার সূত্রধরে খেলা শেষে বাড়ি ফেরার পথে ইয়ারুল ইসলাম (১৮), ছাব্বির আহমেদ (১৭) সহ সাত-আট জন মিলে দেশীয় অস্ত্র লোহার রড ও দা দিয়ে মাজহারুলকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় চিৎকার শুনে তার বাবা ও অন্যান্যরা মাজহারুলকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তাররা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার নিউরো সাইন্স হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় সোমবার রাত প্রায় একটা দিকে মাজহারুল মৃত্যু হয়। বহেড়াতৈল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওয়াদুদ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। বখাটেদের উপযুক্ত শাস্তি হওয়া উচিত। সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।